‘এখন দেখি, পুলিশ চোখে–মুখে–বুকে গুলি করে’

‘আগে শুনতাম পুলিশ পায়ে গুলি করে। এখন দেখি পুলিশ চোখে-মুখে-বুকে গুলি করে’, এই বক্তব্য দিয়েছেন লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনপির যুব সংগঠনের একজন কর্মী মোস্তফা কামাল। গত ১৮ জুলাই লক্ষ্মীপুরে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি ঘিরে পুলিশ ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষ হয়। সেই সংঘর্ষে পুলিশের ছররা গুলিতে আহত মোস্তফা কামাল তাঁর দৃষ্টিশক্তি হারান।

গত ১৮ জুলাই কেন্দ্রঘোষিত পদযাত্রা কর্মসূচিতে সংঘর্ষে নিহত কৃষক দল নেতা সজীব হোসেনের পরিবার এবং পুলিশের গুলিতে দৃষ্টিশক্তি হারানো দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে ঢাকায় মতবিনিময় সভার আয়োজন করে লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনপি। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় ১৮ জুলাইয়ের কর্মসূচিতে দৃষ্টিশক্তি হারানো বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের ছয়জন নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। দৃষ্টিশক্তি হারানো যুবদলের কর্মী মোস্তফা কামাল বলেন, ‘আওয়ামী লীগের লোকজন হেলমেট পরে গুলি করে। আগে শুনতাম পুলিশ পায়ে গুলি করে। এখন দেখি চোখে-মুখে-বুকে গুলি করে।’

দৃষ্টিশক্তি হারানো লক্ষ্মীপুর কৃষক দলের নেতা বোরহানউদ্দিন বলেন, ‘পুলিশের সঙ্গে কিছু লোক ছিল, তারাও গুলি করে। শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছিলাম। আমার অপরাধ কী ছিল?’

পুরো প্রতিবেদন পড়ুন প্রথম আলোয়

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top