পিটার হাসের ডায়েরি : ‘আমাদের আগ্রহ শুধু সহিংসতামুক্ত, অবাধ, সুষ্ঠু, নির্বাচন’

বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি. হাস। ২০২১ সালের ১৮ ডিসেম্বর তাকে যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে চূড়ান্ত করে। তিনি ২০২২ সালের ১ মার্চ ঢাকায় আসেন এবং আর্ল মিলারের স্থলাভিষিক্ত হন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এরই মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলো ও বিভিন্ন সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে আলোচনা, বৈঠক ও সাক্ষাৎ শুরু করেছেন। বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে পিটার হাসের দৌড়-ঝাঁপ নিয়ে এই আয়োজন। তার বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম এখানে নিয়মিত আপডেট করা হবে-

৩ আগস্ট ২০২৩, বৃহস্পতিবার
আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু এভিনিউ, ঢাকা

‘আমাদের আগ্রহ শুধু সহিংসতামুক্ত, অবাধ, সুষ্ঠু, নির্বাচন’

বাংলাদেশে নির্বাচন দলীয় সরকার না তত্ত্বাবধায়কের অধীনে হবে, প্রধান দুই দলের এই বিরোধের জায়গায় নিজেকে জড়াতে রাজি নন বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস।

এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান ব্যাখ্যা করে তিনি বলেছেন, এটা রাজনৈতিক দলগুলোর বিষয়। আমাদের আগ্রহ শুধু সহিংসতামুক্ত, অবাধ, সুষ্ঠু, নির্বাচন।

নির্বাচন সামনে রেখে অংশীজনদের সঙ্গে ধারাবাহিক বৈঠকের অংশ হিসেবে ৩ আগস্ট ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে মতবিনিময় করেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত। পরে তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলে প্রধান দুই দলের রাজনৈতিক বিরোধের প্রসঙ্গ আসে।

মতবিনিময় শেষে পিটার হাস সাংবাদিকদের বলেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে এ বৈঠক, বাংলাদেশে সব দলের সঙ্গে যে সিরিজ বৈঠক করেছি তারই অংশ। আমি অন্য রাজনৈতিক দল, গণমাধ্যম, সুশীল সমাজ, পুলিশ, নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে মতবিনিময় করেছি, এটা আমি করেছি আমেরিকান রাষ্ট্রদূত হিসেবে। প্রতিটি মিটিংয়ে আমি একই বার্তার পুনরাবৃত্তি করেছি। এটা আমেরিকার পলিসি- আমরা অবাধ, সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সমর্থন করি। কারো দ্বারা কোনো সহিংসতা চাই না।

আওয়ামী লীগের সঙ্গে বৈঠক

৩ আগস্ট ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে মতবিনিময় করেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি. হাস।

সকালে তিনি ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গেলে দলের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছ জানান। পরে সেখানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত। আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আহম্মেদ, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সেলিম মাহমুদ এবং কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মোহাম্মদ আলী আরাফাত উপস্থিত ছিলেন বৈঠকে।

১ আগস্ট ২০২৩, মঙ্গলবার
নির্বাচন কমিশন ভবন, আগারগাঁও, ঢাকা

অক্টোবরে আসবে মার্কিন ‘প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দল’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রাক নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দল অক্টোবরে বাংলাদেশে আসবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাস।

মঙ্গলবার ঢাকার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে গিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ খবর দেন তিনি।

রাষ্ট্রদূত বলেন, আমি সিইসিকে জানিয়েছি, অক্টোবরের শুরুর দিকে যুক্তরাষ্ট্র একটি প্রি অ্যসেসমেন্ট ইলেকশন মনিটরিং টিম পাঠাবে। এ টিমে বিশেষজ্ঞরা থাকবেন, যাদের নির্বাচন পর্যবেক্ষণ ও প্রস্তুতি নিয়ে অভিজ্ঞতা রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশে ‘অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ’ নির্বাচন প্রত্যাশা করে জানিয়ে পিটার হাস বলেন, “যাতে বাংলাদেশের জনগণ জনপ্রতিনিধি নির্বাচন করতে পারেন।”

প্রধান নির্বাচন কমিশানারের (সিইসি) সঙ্গে বৈঠক

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের প্রধান (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস।

১ আগস্ট বেলা ১১টার দিকে কমিশনের নির্বাচন ভবনে যান মার্কিন রাষ্ট্রদূত।

সিইসির সঙ্গে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের এ বৈঠকে আরপিওর সর্বশেষ সংশোধনী, নতুন দল নিবন্ধনসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। এ সময় নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব খান, ইসি সচিব জাহাংগীর আলমও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top